শুক্রবার, নভেম্বর 27, 2020
Home ফুটবল প্রাক্তন কোচ ও ফুটবলারদের বকেয়া মেটায়নি মোহনবাগান, শাস্তি হতে পারে

প্রাক্তন কোচ ও ফুটবলারদের বকেয়া মেটায়নি মোহনবাগান, শাস্তি হতে পারে

এক দিকে যখন আই লিগের খেতাবি দৌড়ে দুরন্ত গতিতে এগিয়ে চলেছেন জোসেবা বেইতিয়ারা, তখন মাঠের বাইরে জোরালো ধাক্কা খেল মোহনবাগান! দলের চার প্রাক্তন ফুটবলার ও কোচের অর্থ বকেয়া রাখায় নির্বাসনের মুখে শতাব্দীপ্রাচীন ক্লাব।

৩০ দিনের মধ্যে বকেয়া না মেটালে দলবদলের নির্বাসনের মুখে পড়বে মোহনবাগান। ফলে আগামী মরসুমে নতুন কোনও ফুটবলার সই করাতে পারবে না তারা। এখানেই শেষ নয়। মোহনবাগানের তিন লক্ষ টাকা জরিমানাও করেছে সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশনের শৃঙ্খলারক্ষা কমিটি। ১৫ দিনের মধ্যে তা জমা দিতে হবে।

ফেডারেশন সূত্রে খবর, আইএসএলে এই মরসুমে কেরল ব্লাস্টার্সের হয়ে খেলা রাজু গায়কোয়াড়ের বেতন বাবদ বকেয়া রয়েছে ১১ লক্ষ টাকা। আর এক ফুটবলার ড্যারেন কালদেইরা মোহনবাগানের কাছে পান ৮ লক্ষ ৭০ হাজার ৬০১ টাকা। তিনি কেরল ব্লাস্টার্সের হয়ে খেলছেন। এই মরসুমে সবুজ-মেরুন ছেড়ে ইস্টবেঙ্গলে যোগ দেওয়া ডিফেন্ডার অভিষেক অম্বেকরের পাওনা ৫ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা। প্রাক্তন গোলরক্ষক রিকার্ডো কার্ডোজ়োর বকেয়া রয়েছে ৭ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা। গত মরসুমে মোহনবাগানকে কোচিং করানো খালিদ জামিলের বকেয়া ৮.২০ লক্ষ টাকা। তাঁদের আবেদনের ভিত্তিতেই বৈঠকে বসেছিলেন শৃঙ্খলারক্ষা কমিটির সদস্যেরা। 

মোহনবাগানের বিরুদ্ধে বেতন বকেয়া রাখার অভিযোগ নিয়ে শনিবার রাতে নাগপুরে ঊষানাথ বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে আলোচনায় বসেছিলেন ফেডারেশনের শৃঙ্খলারক্ষা কমিটির সদস্যেরা। রবিবার বিকেলে ফেডারেশনের শীর্ষ কর্তারা বললেন, ‘‘মোহনবাগানকে আমরা জানিয়েছি, ৩০ দিনের মধ্যে সকলের বকেয়া মিটিয়ে দিতে হবে। তা না হলে আগামী মরসুমে দু’টি ট্রান্সফার উইন্ডোর একটিতেও ফুটবলার সই করাতে পারবে না তারা।’’ তাঁরা যোগ করেন, ‘‘এটিকের সঙ্গে মোহনবাগান গাঁটছড়া বাঁধলেও এই শাস্তি বহাল থাকবে। ফেডারশনের অনুমোদিত প্রতিযোগিতায় খেলতে পারবে না। তাই  নির্বাসন এড়াতে হলে মোহনবাগানকে পনেরো দিনের মধ্যে জরিমানা অর্থ জমা দিতে হবে। আর তিরিশ দিনের মধ্যে চার ফুটবলার ও প্রাক্তন কোচের বকেয়া মেটাতে হবে।’’ রবিবার রাতের দিকে মোহনবাগানের ডিরেক্টর সৃঞ্জয় বসু ই-মেল বিবৃতিতে জানান, ‘‘নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যেই সকলের বকেয়া মিটিয়ে দেওয়া হবে।’’