বৃহস্পতিবার, অক্টোবর 22, 2020
Home সাম্প্রতিক দেখে নিন ২০২০-২১ অর্থবর্ষের সাধারণ বাজেটে ক্রীড়াক্ষেত্র কী কী পেল বা হারাল

দেখে নিন ২০২০-২১ অর্থবর্ষের সাধারণ বাজেটে ক্রীড়াক্ষেত্র কী কী পেল বা হারাল

দ্য ব্রিজ ডেস্কঃ শনিবার ভারতবর্ষের অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন ২০২০-২১ অর্থবর্ষের সাধারণ বাজেট পেশ করেন। সেখানে ভারত সরকার নতুন অর্থবর্ষে ক্রীড়াক্ষেত্রে জন্য মাত্র ২৮২৬.৯২ কোটি টাকা ঢালার কথা ঘোষণা করেছেন। গত অর্থবর্ষের তুলনায় যা এই বছর মাত্র ৫০ কোটি টাকা বেশি।

সরকার তাদের নিজস্ব প্রচেষ্টা খেলো ইন্ডিয়ার জন্য বরাদ্দ অনেকটাই বাড়িয়েছে। আগে যা বরাদ্দ ছিল তার থেকে বাড়ানো হয়েছে ২৯১.৪২ কোটি টাকা। এই টাকা খেলার একদম তৃণমূল স্তরে যাতে উন্নতি ঘটে সে জন্য ব্যবহার করা হবে। এই বছরই টোকিওতে অলিম্পিকের আসর বসতে চলেছে, এখানে ভালো ফল করার জন্য খেলোয়াড়দের উজ্জীবিত করতে সরকার আগে ১১১ কোটি টাকা খরচ করত, এখন তারা তা কমিয়ে ৭০ কোটি করল।

এছাড়াও ভারত সরকার স্পোর্টস অথরিটি অফ ইন্ডিয়ার (সাই) বরাদ্দও কমিয়ে দিল। আগে তারা সাইয়ের জন্য ৬১৫ কোটি টাকা খরচ করত, এখন তা কমিয়ে ৫০০ কোটি টাকা করা হল। এক্ষেত্রে বলে রাখা ভালো যে সাই হল সেই সংস্থা, যারা দেশের বিভিন্ন ক্রীড়াবিদদের পরিকাঠামো, প্র্যাকটিস করার সরঞ্জাম ও অন্যান্য জিনিস প্রদান করে।

এছাড়াও ২০১০ সালে যেখানে কমনওয়েলথ গেমস অনুষ্ঠিত হয়েছিল সেই জায়গা সংস্কারের জন্য বাজেট ৯৬ কোটি টাকা থেকে নামিয়ে ৭৫ কোটি টাকা করা হয়েছে। অন্যদিকে ক্রীড়াবিদরা জাতীয় কল্যাণ তহবিল থেকে যেমন ২ কোটি টাকা পেতেন, তেমনি পেতে থাকবেন। অন্যদিকে প্রতিবারের মত এবারেও জম্মু-কাশ্মীরে খেলাধুলার উন্নতির জন্য বাজেটে ৫০ কোটি টাকা মঞ্জুর করা হয়েছে। এদিকে লক্ষ্মীবাঈ জাতীয় শরীরচর্চা ইনস্টিটিউট এবার থেকে ৫৫ কোটি টাকা প্রতি অর্থবর্ষে পাবে, যা গত অর্থবর্ষের থেকে ৫ কোটি টাকা বেশি।‌

২০১৯-২০ অর্থবর্ষে এই সরকার ক্রীড়াক্ষেত্রে বাজেট ধার্য করেছিল ২২১৬.৯২ কোটি টাকা, যা পরের দিকে বাড়িয়ে ২৭৭৬.৯২ কোটি টাকা করা হয়।