রবিবার, ডিসেম্বর 6, 2020
Home ক্রিকেট ত্রি-দেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচেই প্রশ্নের মুখে আম্পায়ারিং

ত্রি-দেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচেই প্রশ্নের মুখে আম্পায়ারিং

জয় দিয়ে শুরু হলেও বিশ্বকাপের আগে আম্পায়রিং এর মান নিয়ে প্রশ্ন উঠেই গেল। ঘটনাটি ঘটে ভারত বনাম ইংল্যান্ডের প্রথম টি-২০ ম্যাচে। টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে বেশ বেকাদায় ইংল্যান্ড । হারিয়েছে ৩টি উইকেট। দশম ওভারে বল করছিলেন শিখা পান্ডে। তাঁর শেষ বলে বোল্ড হন ফ্রান উইলসন। কিন্তু রিপ্লেতে দেখা যায় যে শিখা পান্ডের পায়ের কোনো অংশই ল্যান্ডিং এর সময় পপিং ক্রিজের ভিতরে নেই। অবধারিত নো বল। কিন্তু অনেক বার রিপ্লাই দেখার পরেও তৃতীয় আম্পায়ার নো বল না দিয়ে ফ্রান উইলসনকে আউট ঘোষণা করেন।

দ্বিতীয় ঘটনা ঘটে দ্বিতীয় ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে। ১৪৮ তাড়া করতে নেমে ব্রান্টের বল থার্ডম্যান অঞ্চল দিয়ে খেলতে গেলে স্মৃতি মন্ধানার বল ব্যাট ছুঁয়ে জমা পড়ে জোন্সের গ্লাভসে। ব্রান্টের আবেদনের ভিত্তিতে মাঠের আম্পায়র মন্ধানাকে আউট বলে ঘোষণা করেন। কিন্তু দেখা যায় তৃতীয় আম্পায়ারের রিভিউএর পর যে বল যখন জোন্সের গ্লাভসে জমা জয় তখন ক্যাচটি জোন্সের নিয়ন্ত্রনে ছিল না এবং জোন্স মাটিতে পড়ার সঙ্গেই বল তাঁর হাত থেকে বেরিয়ে যায়। নিয়মমাফিক নট আউট থাকেন স্মৃতি এবং সিভারের বলে আউট হওয়ার আগে করেন ১৫ রান। কিন্তু এখানেই প্রশ্ন তুলেছেন একাংশ। স্মৃতি মন্ধানা যেখানে বেরিয়ে যাচ্ছিলেন এবং জেমিমাহ চলে এসেছেন ব্যাট করতে সেখানে ডিসিসান রিভিউ সিস্টেম না থাকা সত্ত্বেও কেন হরমনপ্রীতের আবেদনের ভিত্তিতে থার্ড আম্পায়েরর কাছে আবেদন করা হল।

এই ম্যাচে ৫ উইকেটে ইংল্যান্ডকে হারায় ভারত। গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা নেন হরমনপ্রীত কৌর এবং স্পিনাররা। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টি-২০তে টানা ৪ ম্যাচ হারের পর জয়ের মুখ দেখলো ভারত। হরমনপ্রীতের ব্যাটে আর স্পিন জাদুতে সিরিজের প্রথম ম্যাচেই ইংল্যান্ডকে ৫ উইকেটে হারালো ভারত ৩ বল বাকি থাকতেই। ১৯ ম্যাচে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ভারতের এটি চতুর্থ জয়। এর আগের জয় এসেছিল ২০১৮ সালের মার্চ মাসে মুম্বাইতে ৮ উইকেটে।