মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর 22, 2020
Home ফুটবল সন্দীপ নন্দী, মেহতাব হোসেন, রহিম নবিদের উদ্যোগে এবার সমাজকল্যাণ দেখবে ময়দান

সন্দীপ নন্দী, মেহতাব হোসেন, রহিম নবিদের উদ্যোগে এবার সমাজকল্যাণ দেখবে ময়দান

আগেও বিভিন্ন বিষয়ে প্রাক্তন ফুটবলাররা বিভিন্ন সময়ে জড়ো হয়েছেন। সেবামূলক কাজে এগিয়ে এসেছেন। কিন্তু এবার ফুটবল ছাড়িয়ে সামগ্রিকভাবে সামাজিক স্বার্থে। প্রথমবার ময়দান এক হচ্ছে সমাজের জন্য।

ক্যান্সারে আক্রান্ত মূমূর্ষ রোগীর সেবা করবেন তারা। কোনও গরীব পরিবারের মেয়ের বিয়ে না হওয়ার কথা জানতে পারলে, আর্থিক সহায়তা নিয়ে এগিয়ে আসবেন তারা। কোনও নাবালিকার বাল্যবিবাহ রুখে দিয়ে তাকে স্কুলে ভর্তি করানোর কাজও তারা করার উদ্যোগ নেবেন। তার সঙ্গে পরিকল্পনা থাকবে শিশু শ্রমিকদের উন্নয়নের কাজে নিজেদের জড়ানোর। এমনকী, খেলতে খেলতে কোনও ফুটবলারের মৃত্যু হলেও তার পরিবারের পাশে থাকার দায়িত্ব নেওয়ার ভাবনা তাদের মাথায়।

কারা এরা? কলকাতা ময়দানের অত্যন্ত পরিচিত কিছু মুখ। প্রাক্তন আন্তর্জাতিক কয়েকজন ফুটবলার। যেমন সন্দীপ নন্দী, সুব্রত পাল, মেহতাব হোসেন, রহিম নবি। আগেও বিভিন্ন বিষয়ে প্রাক্তন ফুটবলাররা বিভিন্ন সময়ে জড়ো হয়েছেন। সেবামূলক কাজে এগিয়ে এসেছেন। কিন্তু এবার ফুটবল ছাড়িয়ে সামগ্রিকভাবে সামাজিক স্বার্থে। প্রথমবার ময়দান এক হচ্ছে সমাজের জন্য। বিদেশের ফুটবল ইতিহাসে এরকম কাজের উদাহরণ অসংখ্য। কমিউনিটি সার্ভিসের জন্য নামী প্রাক্তন ভারতীয় ফুটবলাররা তৈরি করছেন সংস্থা। যার নাম দেওয়া হচ্ছে ‘প্লেয়ার্স অলওয়েজ উইথ ইউ’। প্রেসিডেন্ট হতে পারেন সন্দীপ নন্দী, প্রাক্তন আন্তর্জাতিক গোলকিপার। সংস্থায় আপাতত সদস্যের সংখ্যা ৪০। সন্দীপদের এক প্রতিনিধি, প্রাক্তন জাতীয় ফুটবলার ডেনসন দেবদাসের কথায়, “প্রাক্তন ফুটবলার, আমাদের বন্ধু সঞ্জয় পারতের ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার পর থেকেই আমাদের মনে ভাবনাটা আসে। তারপর ধনরাজন মারা গেল। ওদের দুজনের জন্য আমরা উদ্যোগ নিয়েছি। একইসঙ্গে আমাদের মনে হচ্ছে, শুধু ফুটবলার নয়, সমাজের বিভিন্ন স্তরে অনেক মানুষ আছে যাদের দারিদ্র্য অথচ সুস্থভাবে  বাঁচার ইচ্ছে রয়েছে। তাদের জন্যও সাধ্যমতো কিছু করতে পারলে আমাদের মানসিক শান্তি। ফুটবল খেলে যে টাকা রোজগার করেছি তার কিছুটা সমাজের কল্যাণে খরচ করতে পারলে তবেই না মানুষ হিসাবে বেঁচে থাকার সার্থকতা।“