সোমবার, সেপ্টেম্বর 21, 2020
Home ফুটবল পরের মরশুমে মোহনবাগান-এটিকের কোচের চাকরি অনিশ্চিত জেনেও উদাসীন ভিকুনা

পরের মরশুমে মোহনবাগান-এটিকের কোচের চাকরি অনিশ্চিত জেনেও উদাসীন ভিকুনা

আই লিগের খেতাবি দৌড়ে তাঁর কোচিংয়ে অশ্বমেধের ঘোড়ার গতিতে ছুটছে মোহনবাগান। ১১ ম্যাচে ২৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবলের শীর্ষে জোসেবা বেইতিয়ারা। অথচ আই লিগের দ্বিতীয় ম্যাচে চার্চিল ব্রাদার্সের বিরুদ্ধে হারের পরেই রাউল গার্সিয়া, জাভি মার্তিনেসের প্রাক্তন কোচকে শুনতে হয়েছিল ‘গো ব্যাক’ ধ্বনিও। শীর্ষে পৌঁছনো এবং সাফল্য ধরে রাখার বিশ্লেষণ কোচ কিবু ভিকুনার পর্যবেক্ষণে।

জানালেন ভাল খেললেও সাফল্য সবসময় আসে না। দল আই লিগের প্রথম ম্যাচে আইজল এফসির বিরুদ্ধে ড্র করেছিল। দ্বিতীয় ম্যাচে চার্চিলের বিরুদ্ধে লড়াই করেও হারতে হয়েছিল। শুরু হয়েছিল  প্রবল সমালোচনা। সমর্থকরাও ‘গো ব্যাক’ ধ্বনি দিয়েছিলেন। কিন্তু  ভিকুনার বক্তব্য, “আমি ভেঙে পড়িনি। আমি দর্শন বদলাইনি। বিশ্বাস করেছিলাম খেলার ধারাবাহিকতায়। জানতাম তাতে শেষপর্যন্ত সাফল্য আসবেই। ফুটবলারদের মধ্যেও এই বিশ্বাসটা ছড়িয়ে দিতে পেরেছিলাম বলেই আজ আমরা ধারাবাহিক।”  সাফল্যের পিছনে ভিকুনার আরও  এক গুরুত্বপূর্ণ বিশ্লেষণ, “সালভা চামোরোর বদলে পাপাকে সই করানো।”

পেপ গুয়ার্দিওলার ভক্ত ভিকুনা। তাই পেপের ফুটবল দর্শনকে প্রয়োগ করার চেষ্টা তার কোচিংয়ে। জানাতে এতটুকু দ্বিধা করেননি যে, গুর্য়াদিওলার মতো তিনিও চেষ্টা করেছেন আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলার চেষ্টা করেন। তবে ফুটবলাররা কোন ফর্মেশনে খেলতে পচ্ছন্দ করে সেটাই তার ভিকুনার কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।

আই লিগ প্রায় হাতের মুঠোয় জানলেও ভিকুনার সেই নিয়ে নিয়ে বিশেষ উচ্ছ্বাস দেখা যাচ্ছে না। সব ম্যাচের পরেই সাংবাদিক বৈঠকে যা বলেন, সেটাই তার মন্তব্য, “ম্যাচ ধরেই এগোতে চাই।”

মোহনবাগান এটিকে-র সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধেছে। আগামী মরশুমে স্বাভাবিকভাবে দলের কোচ কে হবেন সেই নিয়ে জল্পনা শুরু হয়ে গিয়েছে। হাবাসের জন্য কোচের পদ থেকে সরেও যেতে হতে পারে ভিকুনাকে। কিন্তু স্প্যানিশ কোচ সেই নিয়েও উদাসীন। জানিয়ছেন, কোচেদের বেশি দূর পর্যন্ত ভাবা উচিত নয়। আপাতত আই লিগই তার ভাবনায়।