রবিবার, নভেম্বর 29, 2020
Home ফুটবল দীঘার ঝাউবনে দ্বিতীয় ডিভিশন আই লিগের প্রস্তুতি মহমেডানের

দীঘার ঝাউবনে দ্বিতীয় ডিভিশন আই লিগের প্রস্তুতি মহমেডানের

দীপেন্দু বিশ্বাসের (টেকনিক্যাল ডিরেক্টর) কোচিংয়ে এবার মহমেডান স্পোর্টিং দ্বিতীয় ডিভিশন আই লিগে প্রথম দু’দলের মধ্যে থেকে আগামী বছর আই লিগের মূল পর্বে খেলার জন্য বদ্ধপরিকর।

কখনও ঝাউবনের ভিতরে। আবার কখনও সমুদ্রের ধারে বালির উপরেই চলছে অনুশীলন।আই লিগের দ্বিতীয় ডিভিশনের ম্যাচের আগে জোরকদমে অনুশীলন চালাচ্ছে সাদাকালো ব্রিগেড। গত সপ্তাহ দুয়েক ধরে সৈকত শহর দিঘায় অনুশীলন করছে মহামেডান স্পোর্টিং। গত ৯ জানুয়ারি মহামেডান স্পোর্টিংয়ের ২৭ জন খেলোয়াড় এসেছেন দিঘায়। বুধবার অনুশীলন দলের সঙ্গে যোগ দেন মহামেডান স্পোর্টিংয়ের প্রশিক্ষক তথা বিধায়ক দীপেন্দু বিশ্বাস। বৃহস্পতিবার সকালে তাঁর তদারকিতেই ফুটবলারদের অনুশীলন করার কথা বলে টিম সূত্রে জানা গিয়েছে। অনুশীলনের পাশাপাশি এদিন খেলোয়াড়দের সমুদ্রে নামতেও দেখা গিয়েছে।

দীপেন্দু বিশ্বাসের (টেকনিক্যাল ডিরেক্টর) কোচিংয়ে এবার মহমেডান স্পোর্টিং দ্বিতীয় ডিভিশন আই লিগে প্রথম দু’দলের মধ্যে থেকে আগামী বছর আই লিগের মূল পর্বে খেলার জন্য বদ্ধপরিকর। দীঘা থেকে ফোনে টিডি-র মন্তব্য, “এবছরের দলে ভারসাম্য রযেছে তারুণ্য আর অভিজ্ঞতার। জিতেন মুর্মূ, তীর্থঙ্কর সরকার, প্রিয়ন্ত সিংহ, দীপেন্দু দোয়ারির মতো অভিজ্ঞ ফুটবলারদের পাশাপাশি ফিরোজ আলি, ফরিদ আলির মতো তরুণ ফুটবলাররাও রয়েছে। তাই এবারের পারফরম্যান্স আশা করছি গত কয়েকবছরের চেয়ে অনেকটাই ভাল হবে।” দলে মুসা আর জাস্টিন চিডির মতো দুই নাইজেরীয় ফুটবলারও রয়েছেন। মুসা রক্ষণে খেলেন। আর জাস্টিন আক্রমণাত্মক স্ট্রাইকার। কিন্তু দীপেন্দুর কথাতে বেশি ভরসা যেন জিতেন মুর্মুর প্রতি। তার সঙ্গে তীর্থঙ্কর সরকারেরও প্রতি। দীপেন্দু আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে বললেন, “আপনারা হয়তো মানতে চাইবেন না, জীতেন মুর্মু কলকাতায় খেলা অনেক বিদেশি স্ট্রাইকারের চেয়ে বেশি আক্রমণাত্মক এবং দক্ষ। জীতেন বক্স-টু-বক্স খেলতে পারে। ওর গতি, নিখুঁতভাবে হেডিং করার দক্ষতা অনেক বিদেশি ফুটবলারের চেয়ে নিখুঁত।”