বুধবার, সেপ্টেম্বর 23, 2020
Home সাম্প্রতিক খেলো ইন্ডিয়ায় সোনা জিতেও ত্রিয়াশা পালের নিজের সাইকেল নেই! দরকার আট লক্ষ...

খেলো ইন্ডিয়ায় সোনা জিতেও ত্রিয়াশা পালের নিজের সাইকেল নেই! দরকার আট লক্ষ টাকা

যে সাইকেল চালিয়ে খেলো ইন্ডিয়ায় সোনা পেলাম, সেটা তো কলকাতায় ফিরে সাই সেন্টারে জমা দিয়ে দিতে হবে। সেটা অন্য কোনও সাইক্লিস্ট হয়তো তার কোনও টুর্নামেন্টে নিয়ে যাবে।

দরকার একটি সাইকেলের। যার দাম আট লক্ষ টাকা! খেলো ইন্ডিয়া গেমসে সোনা জিতেও তাই স্বস্তিতে নেই ত্রিয়াশা পাল। বৃহস্পতিবার খেলো ইন্ডিয়া গেমসের সাইক্লিং ইভেন্টে তিন নম্বর সোনা পেয়েও নদীয়ার মদনপুরের এই ১৭ বছরের মেয়েটির মুখে বিশেষ উচ্ছ্বাস ছিল না! কারণ তার একটি নিজের সাইকেল প্রয়োজন। সাই সেন্টারে একাধিক সাইকেল রাখা থাকে। কিন্তু সেই সাইকেলগুলো ব্যবহার করেন একাধিক শিক্ষার্থী সাইক্লিস্ট। বিভিন্ন সাইকেলের সঙ্গে বারবার মানিয়ে নিতে অসুবিধেও হওয়াটা স্বাভাবিক। তাই যে দক্ষতা আর পরিশ্রমে জাতীয় পর্যায়ের টুর্নামেন্টে তিন তিনটে সোনার পদক অর্জন করা যায় তার যে নিজস্ব একটা সাইকেলের ভীষণ প্রয়োজন সেটা নতুনভাবে বলার অপেক্ষা রাখে না। ত্রিয়াশা গত বছর এশিয়ান মিটে রূপো ও ব্রোঞ্জ জিতেছিল। বৃহস্পতিবার গুয়াহাটি থেকে ফোনে কথা বলার সময় ত্রিয়াশার মুখে সেই দুশ্চিন্তা। বলল, “আট লক্ষ টাকা কোথায় পাব জানি না। কিন্তু যে সাইকেল চালিয়ে খেলো ইন্ডিয়ায় সোনা পেলাম, সেটা তো কলকাতায় ফিরে সাই সেন্টারে জমা দিয়ে দিতে হবে। সেটা অন্য কোনও সাইক্লিস্ট হয়তো তার কোনও টুর্নামেন্টে নিয়ে যাবে। দেশের মধ্যে তাও এভাবে চলতে পারে। কিন্তু বিদেশে কোনও টুর্নামেন্টে অংশ নিতে হলে এভাবে চলবে না। নিজের একটা সাইকেল ভীষণ প্রয়োজনীয়।”

চলতি বছরই বিশ্ব জুনিয়র সাইক্লিং ইভেন্ট। ত্রিয়াশার পরিবারের অবস্থা একদমই ভাল নয়। বাংলা থেকে একমাত্র সাইক্লিস্ট হিসাবে খেলো ইন্ডিয়া গেমসে অংশ নিয়েছিল ত্রিয়াশাই। এখনও পর্যন্ত তিনটি সোনা পাওয়া ত্রিয়াশাই খেলো ইন্ডিয়ার সেরা ক্রীড়াবিদ কি না সেই আলোচনা ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গিয়েছে। ২০১৭ সালে ত্রিয়াশা দিল্লির সাই কেন্দ্রে যোগ দিয়েছিল। তার আগে পর্যন্ত সে ছিল একজন অ্যাথলিট।