শুক্রবার, নভেম্বর 27, 2020
Home ফুটবল দু বছর বাঁশি হাতে ফিরে বাংলার একমাত্র মহিলা ফিফা রেফারি কণিকা বর্মণ

দু বছর বাঁশি হাতে ফিরে বাংলার একমাত্র মহিলা ফিফা রেফারি কণিকা বর্মণ

২০১৭ সালে রেফারিং থেকে সরে দাঁড়ানো কণিকা বর্মণ ফিরে আসলেন বাংলা থেকে ফিফার একমাত্র মহিলা রেফারি হিসেবে।

২০১৩ সালে কলকাতা প্রিমিয়ার ডিভিশন ফুটবল লিগে ইস্টবেঙ্গল আর রেলওয়ে এফসি ম্যাচ পরিচালনা করা মহিলা রেফারি। কলকাতার পুরুষদের বড়দের হাড্ডাহাড্ডি ফুটবলে প্রথম মহি্লা রেফারি। ইতিহাস সৃষ্টি করা সেই কণিকা বর্মণ পরের এক মরশুম পর্যন্ত প্রিমিয়ার ডিভিশন লিগের আরও অনেক ম্যাচ পরিচালনা করে ২০১৪ সালে হঠাত হারিয়ে যান। জলপাইগুড়ির মেয়ের বিয়ে হয়ে যায় উত্তর ২৪ পরগণার দত্তপুকুরে। ছোট্ট মেয়েকে নিয়ে সংসারে ডুবে যাওয়া কণিকার আবার প্রত্যাবর্তন ২০১৭ সালে। ছোট্ট মেয়েকে জলপাইগুড়িতে বাপের বাড়িতে পাঠিয়ে দিয়ে কণিকা আবার শুরু করেন ট্রেনিং।

রেফারিংয়ের আইন পরীক্ষায় পাশ করার জন্য কণিকার ত্যাগ ও নিরলস পরিশ্রমের পুরষ্কার এল বুধবার। ফিফা যে আন্তর্জাতিক রেফারিদের তালিকা প্রকাশ করেছে তাতে নাম রয়েছে বাংলার কণিকার। দু বছর আগে বাংলার শেষ মহিলা ফিফা ব্যাজধারী রেফারি ছিলেন মণিকা জানা। কণিকা সেই জায়গাটা এবার নিয়ে নিলেন। রেফারিংয়ে্র পরীক্ষায় অন্যতম বিষয় ছিল ৪০ মিটার দৌড়। কণিকা সেটা শেষ করেছেন ৫.৭৫ সেকেন্ডে। এত কম সময়ে শুধু এবার নয়, আগেও কোনও রেফারি দৌড়তে পারেননি। কণিকা ছাড়া ভারতে আর মহিলা ফিফা রেফারি মণিপুরের রঞ্জিতা দেবী। আর মেয়েদের ফিফা সহকারী রেফারি গোয়ার জুবিনা ফার্নান্ডেজ এবং মেঘালয়ের রিওলাংধর।