বুধবার, সেপ্টেম্বর 23, 2020
Home ক্রিকেট পাকিস্তানের সঙ্গে সিরিজ অনিশ্চিত, বিশ্বকাপে ভারতীয় মহিলা ক্রিকেট দলের ভবিষ্যৎও।

পাকিস্তানের সঙ্গে সিরিজ অনিশ্চিত, বিশ্বকাপে ভারতীয় মহিলা ক্রিকেট দলের ভবিষ্যৎও।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের কাছ থেকে প্রয়োজনীয় ছাড়পত্র না পাওয়ার জন্য সেই সিরিজ এখনো আয়োজন করে উঠতে পারেনি ভারতীয় বোর্ড। পাকিস্তানের সঙ্গে রাজনৈতিক অস্থিরতা যে তাঁর এই গড়িমসির কারণ তা বুঝতে অসুবিধা হয় না।

২০১৬ সালে ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে একদিনের সিরিজে ৩-০ দুরমুশ করেও একদিনের বিশ্বকাপে সরাসরি খেলার যোগ্যতা অর্জন করতে পারেনি ভারত। আইসিসির চ্যাম্পিয়নশিপের অন্তর্গত , পাকিস্তানের বিপক্ষে একদিনের ম্যাচের দ্বিপাক্ষিক সিরিজ পাকিস্তানে খেলতে অস্বীকার করে ভারতীয় বোর্ড। আয়োজক দেশ পাকিস্তান গত্যন্তর না দেখে নিরপেক্ষ ভেন্যুতে খেলতে আমন্ত্রণ জানালেও রাজী হয়নি ভারতীয় বোর্ড। ফলে চ্যাম্পিয়নশিপের সেই সিরিজের সম্পূর্ণ ৬ পয়েন্ট পাকিস্তান কে দিতে বাধ্য হয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থা। ১৮ ম্যাচে ৯ টি ম্যাচ জিতলেও পাকিস্তানের সাথে ৬ পয়েন্ট হাতছাড়া হওয়ার জন্য ২০১৭ সালের বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা সরাসরি অর্জন করতে পারেনি ভারত। খেলতে হয়েছিল কোয়্যালিফায়ার।

বর্তমানে আইসিসি ওমেন্স চ্যাম্পিওনশিপে ১৮ ম্যাচে ১০ টি জিতে ভারতের সংগ্রহ ২০ পয়েন্ট এবং একি ম্যাচ খেলে পাকিস্তানের পয়েন্ট ১৬। অস্ট্রেলিয়া এবং ইংল্যান্ড ২০২১ সালের বিশ্বকাপের জন্য ইতিমিধ্যে কোয়ালিফাই করে গেছে। সরাসরি যোগ্যতা অর্জনের জন্য বাকি রয়েছে ২ টি স্থান। এর দাবিদার ৪ টি দল- ভারত , পাকিস্তান ছাড়াও দক্ষিণ আফ্রিকা (১৫ ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট) এবং নিউজিল্যান্ড (১৫ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট)।

২০১৭ সালের বিশ্বকাপে রানার্স হওয়ার পরেও একি ঘটনার পুনরাবৃত্তি হতে চলেছে। এই বার পাকিস্তানের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ আয়োজনের দায়িত্ব পেয়েছিল ভারত। ২০১৯ সালের নভেম্বর মাসের মধ্যে আয়োজন করতে হত সেই সিরিজ। কিন্তু স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের কাছ থেকে প্রয়োজনীয় ছাড়পত্র না পাওয়ার জন্য সেই সিরিজ এখনো আয়োজন করে উঠতে পারেনি ভারতীয় বোর্ড। পাকিস্তানের সঙ্গে রাজনৈতিক অস্থিরতা যে তাঁর এই গড়িমসির কারণ তা বুঝতে অসুবিধা হয় না। এখন দেখার এই সিরিজ বাতিল হলে আইসিসি পয়েন্ট ভাগাভাগির ক্ষেত্রে কি ভূমিকা নেন । তারা যদি আগের বারের মত ভারতীয় বোর্ডের দ্বারা সিরিজ বাতিলের জন্য ৬ পয়েন্ট পাকিস্তান কে দিয়ে দেন তাহলে এবারো সরাসরি যোগ্যতা অর্জন করা হবে না ভারতের। আর পয়েন্ট ভাগাভাগি হলে ক্ষীণ আশা থেকে যাবে। এখন দেখার পাকিস্তানের সঙ্গে সিরিজ খেলবে ভারত না আগের বারের মতই কোয়ালিফায়ার খেলেই বিশ্বকাপে যেতে হবে ভারতকে।