বৃহস্পতিবার, নভেম্বর 26, 2020
Home ফুটবল গোয়েঙ্কা-মোহনবাগান চু্ক্তির সম্ভাবনা বাড়ছে, নামের দিকে তাকিয়ে সকলে

গোয়েঙ্কা-মোহনবাগান চু্ক্তির সম্ভাবনা বাড়ছে, নামের দিকে তাকিয়ে সকলে

মোহনবাগানের সঙ্গে সঞ্জীব গোয়েঙ্কা গোষ্ঠীর চুক্তি হওয়ার অপেক্ষায় ক্লাবের সদস্য ও সমর্থকরা। যে বিষয়ের দিকে সদস্য, সমর্থকরা আপাতত তাকিয়ে তা হল মোহনবাগান নামের সঙ্গে কোন নামটা যুক্ত হয়। এটিকে মোহনবাগান? না আরপিজি মোহনবাগান?

মোহনবাগানের সঙ্গে সঞ্জীব গোয়েঙ্কা গোষ্ঠীর চুক্তি হওয়ার অপেক্ষায় ক্লাবের সদস্য ও সমর্থকরা। যে বিষয়ের দিকে সদস্য, সমর্থকরা আপাতত তাকিয়ে তা হল মোহনবাগান নামের সঙ্গে কোন নামটা যুক্ত হয়। এটিকে মোহনবাগান? না আরপিজি মোহনবাগান?

মোহনবাগান কর্তাদের সঙ্গে কথা বলে বোঝা যাচ্ছে তাদের ইচ্ছে দলের সঙ্গে সরাসরি আরপিজি নামটা যুক্ত হোক। কারণ এটিকে যুক্ত কলকাতা গেমস অ্যান্ড স্পোর্টস প্রাইভেট লিমিটেডের সঙ্গে। সেখানে আরপিজি-র সঙ্গে এখনও মাঠের কোনও প্রতিষ্ঠান সংযুক্ত হয়নি। কিন্তু শেষপর্যন্ত চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন সঞ্জীব গোয়েঙ্কা।

জানা গিয়েছে জার্সির রং সবুজ-মেরুনই থাকবে। সংযুক্তিকরণ হলে শেয়ারের অধিকাংশ থাকতে পারে গোয়েঙ্কা গোষ্ঠীর হাতে। সেক্ষেত্রে বোর্ড অফ ডিরেক্টরস হবে।

কিন্তু এত কিছুর পরেও একই আর্থিক পৃষ্ঠপোষকতায় তৈরি হওয়া দুটো ফুটবল দলের জাতীয় পর্যায়ের দুটো প্রথম সারির টুর্নামেন্টে অংশ নেওয়া নিয়ে আপত্তি জানাতে পারে সর্বভারতীয় ফুটবল সংস্থা এআইএফএফ। আরপিজি মোহনবাগানের পক্ষে কী সম্ভব আইএসএল খেলা? তাহলে এটিকে-র ভবিষ্যত কী? একই স্পনসরের ব্যানারে দুটো দল কীভাবে আইএসএল খেলবে? আপত্তি জানাতে পারে এআইএফএফ। যদিও মোহনবাগান কর্তারা এই বিষয় নিয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছেন। লুধিয়ানায় দলের সঙ্গে যাওয়া ক্লাব কর্তার সরকারি মন্তব্য, “সকলকে একসঙ্গে জানাবো এই বিষয়ে। কে আমাদের সঙ্গে যুক্ত হচ্ছে সেটা এখনই বলতে পারব না।“

এদিকে মঙ্গলবার লুধিয়ানায় গিয়ে পঞ্জাব এফসি-র বিরুদ্ধে এক পয়েন্ট ছিনিয়ে নিলেও দলের পারফরম্যান্স দুশ্চিন্তায় রাখল কোচ কিবু ভিকুনাকে। কারণ আগামী রবিবারই ইস্টবেঙ্গলের বিরুদ্ধে ডার্বি। মঙ্গলবার ম্যাচের পর কোচের বিশ্লেষণ, “এক পয়েন্ট পাওয়াটা আমাদের কাছে অ্যাওয়ে ম্যাচে অবশ্যই প্রাপ্তির। কিন্তু ইস্টবেঙ্গলের মতো শক্তিশালী দলের বিরুদ্ধে এরকম পারফরম্যান্স হলে দুশ্চিন্তার বিষয়।“